এসপিবি.এন নিউজ – অনলাইন ডেস্ক: শারীরিক সম্পর্ক। নাম শুনলে এখনও অনেকেই মুখ লুকোন। বিশেষ করে নারীরা। কথা বলা তো দূরে থাক, বিষয়টি উঠলেই যেন এখনও বেশিরভাগ নারীরাই লাজ লজ্জায় একেবারে সিঁটিয়ে যান। আর তাই সঙ্গীর সঙ্গে সঙ্গ দেওয়া ছাড়া, বিশ্বের বেশিরভাগ মেয়েই এখনও সেক্সকে উপভোগ করতে পারেন না। সময় যতই এগিয়ে যাক না কেন, নারীরা কিন্তু এ ক্ষেত্রে বেশ পিছনে।

আর এখন তো আরও সমস্যা। স্বামী, স্ত্রী দু’জনেই যদি চাকরি করেন, তাহলে দিনের শেষে ঘুমের দেশে চলে যাওয়া। অনেকে আবার সঙ্গিনীর সঙ্গে অন্তরঙ্গ হলেও, সঙ্গীনি কী চান সে দিকে নজরই দেন না। ফলে, অন্তরঙ্গতার কতটা পর্যায়ে গেলে আপনার স্ত্রী বা প্রেমিকা চরম সুখ পাবেন, সে বিষয়ে নজর আন্দাজ করে যান বেশিরভাগ পুরুষই।

ফলে, যৌন সম্পর্ক থাকলেও, মহিলারা অনেক সময়ই যৌন অসন্তুষ্টিতে ভোগেন। মুখ ফুটে বলতেও পারেন না সবকিছু। তাই মহিলাদের যৌন সন্তুষ্টির বিষয়টি তো এবার পুরুষের বোঝার সময় হয়েছে। কিন্তু, কি করে বুঝবেন আপনার সঙ্গিনীর যৌন অসন্তুষ্টি রয়েছে? তাই তো?

পুরুষদের তুলনায় মহিলারা অনেক বেশি আবেগপ্রবণ। তাই, চেষ্টা করুন সঙ্গিনীর মনের কথা বুঝতে। সারাদিন সময় না হলেও, রাতে একসঙ্গে বেশ কিছুটা সময় কাটান। কথা যে সব সমইয় বলতেই হবে, এমন নয়। চোখ বন্ধ করে একে অপরকে বোঝার চেষ্টা করুন। রোম্যান্টিক গান চালিয়ে দিন। মন বোঝার চেষ্টা করুন স্ত্রী বা প্রেমিকার।

সেক্সের ক্ষেত্রে বেশিরভাগ পুরুষই মহিলাদের মতামতকে গুরুত্ব দিতে চান না। নিজের মত করে সব গুছিয়ে নিয়ে পত্রপাঠ অন্যদিকে ফিরে ঘুমিয়ে পড়েন অনেকেই। তবে এবার সাবধান ! ওইসব দিন শেষ। প্রতি নিয়ত এরকম করলে কিন্তু আপনার স্ত্রী বা প্রেমিকা যে যৌন অসন্তুষ্টিতে ভোগেন, তা বলার অপেক্ষা রাখে না। তাই, স্ত্রী বা প্রেমিকার মতামতকে গুরুত্ব দিন সেক্সের সময়।

বিছানায় রাতদিন একঘেয়ে কাজ করবেন না। নতুন নতুন জিনিস করার চেষ্টা করুন। অনেক মহিলাই বিভিন্ন রকম সেক্স পজিশন পছন্দ করেন। তাই, বিছানায় স্ত্রী বা প্রেমিকার ভালো লাগাকেও গুরুত্ব দেওয়া এবার শুরু করুন। নিশ্চিত, এর ফল পাবেন হাতেনাতে।

সূত্র: কলকাতা২৪