এসপিবি.এন নিউজ – অনলাইন ডেস্ক: আগামী মাসেইতো পবিত্র মাহে রমজান। রোজা রাখার ফলে সহজেই শরীরের বাড়তি ওজন ঝড়ে যায়। তাই রমজানে ফিটনেস সম্পর্কে একটু সচেতন হলে আপনি সহজেই আপনার বাড়তি ওজন অনেকটা কমিয়ে ফেলতে পারবেন।

সামান্য সময় ঘুম এর পর সকালে উঠে ব্যায়াম করা অনেকের ক্ষেত্রেই একটু বিরক্তি কর। কিন্তু আপনার সামান্য কিছু অভ্যাস ও খাদ্যাভাসের সতর্কতা আপনাকে আরো স্বাস্থ্যবান ও ফিট করে তুলতে পারে। প্রত্যেকেই ফিট থাকতে চায়। সে মোটাই হোক বা চিকন। এক্ষত্রে ব্যায়াম করা সকলেরই দরকার। কারণ যেই মানুষটাকে আপনি শুকনো বা রোগা মনে করছেন, তার শরীরেই হয়তোবা প্রচুর কোলেস্টরল আছে।

প্রতিদিন রমজানে ফিটনেস ধরে রাখতে আপনার জীবনের মাত্র ১০ থেকে ২০ মিনিট সময় আপনার জীবন-যাত্রাকে পালটে দিতে পারে, মুক্তি দিতে পারে অসংখ্য রোগ বালাই থেকে।

রমজানে ফিটনেস ধরে রাখার কিছু পদ্ধতি
কার্ডিয়াক-ভাস্কুলার ব্যায়াম

হার্টের পাম্প করা সচল রাখতে প্রতিদিন সকালে এই ব্যায়ামটি অনেক উপযোগী । এতে রক্ত সঞ্চালন-ও স্বাভাবিক থাকে। কার্ডিয়োভাস্কুলার ব্যায়াম এর জন্য সকালে জগিং, সাইকেল চালানো, জোরে জোরে শ্বাস প্রশ্বাস নেওয়া ইত্যাদি করতে পারেন। এর মধ্যে সবচেয়ে উত্তম হলো জগিং। পছন্দের গানের সাথে কিছুটা নাচ-ও হতে পারে আপনার জন্য কার্ডিয়ো-ভাস্কুলার ব্যায়াম।এই ব্যায়াম গুলোতে কঠিন ওয়ার্ক-আউট প্রয়োজন হয় না। তাই সহজেই আপনি এটি করতে পারবেন।

ডাম্বেল

১ কেজি থেকে ৩ কেজি, যেটাই আপনার জন্য সুবিধাজনক তা নিয়েই ব্যায়াম করুন। ২০-৩০ মিনিটের এই ব্যায়াম আপনাকে শরীরের বাড়তি ক্যালোরি পুড়ায়ি ফেলবে।

জাম্প স্কোয়াড

শুরুর দিকে জাম্প স্কোয়াড করতে ডাম্বেল লাগে না। এই ব্যায়ামটির জন্য প্রথমে দুই হাত সোজা করে মাথার উপরে তুলুন, এরপর হাত নিচে নামাতে নামাতে বসে পরুন। ৩০ সেকেন্ড একটানা এভাবে করতে থাকুন। এতে আপনার শরীরের সাম্যতা রক্ষার ক্ষমতা মজবুত হবে।

পুস-আপ এক্সটেনশন

সাধারণ পুস-আপের নিয়মতো আমরা সবাই জানি। পুস আপের সাথে পায়ের উরু উপরের দিকে উঠানোর নাম হলো পুষ-আপ এক্সটেনশন। এই পুস আপ এমনভাবে করবেন যাতে পায়ের উপর প্রেশার না পরে। প্রতি পায়ের জন্য এই ব্যায়াম ১০ বার করে করুন।

প্ল্যাঙ্ক

এই ব্যায়ামেও ডাম্বেল দরকার হয় না। প্রথমে মেঝের দিকে মুখ করে শুয়ে পড়ুন। দু’পায়ের আঙ্গুল ও হাতের কনুই এর উপর ভর দিয়ে শরীর উপরের দিকে উঠানোর।

আপনার শরীরে ব্যায়ামের চাহিদা প্রতিদিন-ই থাকে। তাই শরীরের বিভিন্ন অঙ্গের প্রতি মনোযোগ রেখে প্রতিদিন ব্যায়াম করবে। এতে কিছুদিনের মাঝেই শরীর অনেক ফিট হয়ে উঠবে।