এসপিবি.এন নিউজ – অনলাইন ডেস্ক: বড়সড় ধাক্কা খেল ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ড (বিসিসিআই)। প্রস্তাবিত নতুন আর্থিক ও পরিচালন কাঠামো নিয়ে বিশ্বের সবচেয়ে প্রভাবশালী ক্রিকেট বোর্ডের আপত্তি পাত্তাই পায়নি আইসিসির বোর্ড সভায়। কাল দুবাইয়ে ভোটাভুটিতে ভরাডুবি হয়েছে বিসিসিআইয়ের।

পরিচালন কাঠামোর বিরোধিতায় শুধু শ্রীলঙ্কাকে সঙ্গী পায় ভারত। নতুন কাঠামোর পক্ষে ভোট পড়ে ৮টি। কিন্তু আর্থিক সংস্কার প্রস্তাবের বিরোধিতায় কাউকেই পাশে পায়নি ভারতীয়রা, হেরেছে ৯-১ ভোটে। এখন ভোটাভুটি হলেও আগামী জুনে আইসিসির বার্ষিক সভাতেই আনুষ্ঠানিকভাবে চূড়ান্ত হবে সব সংস্কার প্রস্তাব।

কাল পাস হওয়া নতুন আর্থিক সংস্কার প্রস্তাব অনুযায়ী ভারত আইসিসির কাছ থেকে ২৯৩ মিলিয়ন (২৯.৩ কোটি) মার্কিন ডলার পাবে। যা কিনা ভারতের দাবি করা অর্থের অর্ধেকের সামান্য বেশি। অথচ পরশু আইসিসি বিসিসিআইকে ৪০০ মিলিয়ন ডলার নিয়ে ঝামেলা চুকিয়ে ফেলার প্রস্তাব দেয়।

আইসিসি চেয়ারম্যান শশাঙ্ক মনোহরের দেওয়া সমঝোতার সেই প্রস্তাব প্রত্যাখ্যান করে ভারত। তারা অটল থাকে আগের ‘তিন মোড়ল’ কাঠামোর ৫৭০ মিলিয়ন ডলারের দাবিতেই। উল্টো বিসিসিআই প্রস্তাব দেয়, তারা ৫৭০ মিলিয়নই পাবে, তবে অন্য বোর্ডগুলো নতুন আর্থিক কাঠামো অনুযায়ী অর্থ পাবে। ভোটেই প্রমাণিত হয়ে গেল, সেই প্রস্তাবে রাজি হয়নি অন্য কেউ।

কাল পরিচালন কাঠামো সংস্কার প্রস্তাব পাস হলেও আইসিসি বাদ দিয়েছে পূর্ণ সদস্য দলের সহযোগী সদস্যে অবনমিত হওয়ার ধারাটি। বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড, জিম্বাবুয়ে ক্রিকেট ও শ্রীলঙ্কা ক্রিকেট আপত্তি তুলেছিল প্রস্তাবিত ওই ধারার।

কাল ভোটার সংখ্যা বাড়ানোর প্রস্তাবও অনুমোদন করেছে আইসিসি বোর্ড। এত দিন ভোট দিতে পারত শুধু টেস্ট খেলুড়ে ১০টি দল। ভোট বেড়েছে আরও পাঁচটি। তিনটি সহযোগী দেশ, একজন স্বাধীন নারী পরিচালক ও আইসিসি চেয়ারম্যানও ভোট দিতে পারবেন। ক্রিকইনফো।