এসপিবি.এন নিউজ – অনলাইন ডেস্ক: সুন্দরবনের কাছে বাগেরহাটের রামপালে বিদ্যুৎকেন্দ্র নির্মাণ বন্ধের দাবিতে তেল-গ্যাস-খনিজ সম্পদ ও বিদ্যুৎ-বন্দর রক্ষা জাতীয় কমিটির আধাবেলা হরতাল শুরু হয়েছে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসে বিক্ষোভ মিছিলে পুলিশের বাধা আর কাঁদুনে গ্যাস নিক্ষেপের মধ‌্য দিয়ে।

বিভিন্ন বাম ছাত্র সংগঠনের কর্মীরা বৃহস্পতিবার সকাল ৬টার দিকে টিএসসি মোড় থেকে হরতালের সমর্থনে বিক্ষোভ মিছিল নিয়ে শাহবাগের দিকে অগ্রসর হয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্রীয় মসজিদের সামনের রাস্তায় পুলিশের বাধার মুখে পড়ে।এক পর্যায়ে সেখানে ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়া শুরু হলে পুলিশ পিছিয়ে যায় এবং বিক্ষোভকারীরা পুলিশের একটি পিকআপ ভ‌্যানের কাচ ভাংচুর করে।

সকাল সাড়ে ৬টার দিকে হরতালকারীরা মিছিল নিয়ে আবার শাহবাগের দিকে এগোতে থাকলে পুলিশ কাঁদুনে গ্যাসের শেল ছোড়ে। বাধা পেয়ে ছাত্রসংগঠনগুলোর নেতাকর্মীরা চারুকলা অনুষদের সমানের রাস্তায় অবস্থান নেন এবং সেখানে টায়ারে আগুন দিয়ে বিক্ষোভ দেখাতে থাকেন।

ছাত্র ইউনিয়নের সভাপতি লাকী আক্তার ও সাধারণ সম্পাক জি এম জিলানী শুভ, সমাজতান্ত্রিক ছাত্র ‍ফ্রন্টের কেন্দ্রীয় কমিটির সভাপতি নাঈমা খালেদ মনিকা ও ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় শাখার সভাপতি ইভা মজুমদারসহ বাংলাদেশ ছাত্র ফেডারেশন ও বিভিন্ন বাম ছাত্রসংগঠনের দেড়শতাধিক নেতাকর্মী এই বিক্ষোভে অংশ নিচ্ছে।

প্রগতিশীল ছাত্র জোটের সমন্বয়ক ও বিপ্লবী ছাত্র মৈত্রীর যুগ্ম আহ্বায়ক ইকবাল কবীর বলেন, আমাদের বিক্ষোভ মিছিলে পুলিশ পাঁচ দফা টিয়ার শেল ছুড়েছে, রাবার বুলেট ছুড়েছে। ৩০-৪০ জন নেতাকর্মী পুলিশের রাবার বুলেটে আহত হয়েছেন বলে ছাত্র ইউনিয়নের সভাপতি লাকী আক্তারের দাবি।

শাহবাগ থানার ওসি আবু বকর সিদ্দিক বলেন, বিক্ষোভ মিছিল করে তারা শাহবাগের দিকে আসতে চাইলে পুলিশ বাধা দিয়েছে। থানার সামানে আমাদের ব‌্যারিকেড আছে। কয়েক দফা টিয়ারশেল ছোড়া হয়েছে স্বীকার করলেও রাবার বুলেটের বিষয়ে কোনো কথা বলেননি ওসি।

তিনি বলেন, বিক্ষোভকারীদের শাহবাগ মোড়ে যেতে বাধা দেওয়া হয়েছে। আশপাশে কয়েকটি হাসপাতাল ও গুরুত্বপূর্ণ স্থাপনা রয়েছে। এ কারণেই পুলিশ বাধা দিয়েছে।

আধাবেলার এই হরতালে বিশ্ববিদ‌্যালয় ক‌্যাম্পাসের ভেতরে হরতাল সমর্থকদের তৎপর দেখা গেলেও শাহবাগ মোড় হয়ে যানবাহন চলছে স্বাভাবিক দিনের মতই। রাজধানীর অন‌্যান‌্য এলাকার প্রধান সড়কগুলোতেও নগর পরিবহন ও ব‌্যক্তিগত যান চলাচল স্বাভাবিক।