এসপিবি.এন নিউজ – অনলাইন ডেস্ক: ভারতের উরি সেনাঘাঁটিতে হামলার পর রাতারাতি বলিউড ছাড়তে হয়েছিল পাকিস্তানি অভিনেতা ফাওয়াদ খানকে। ‘রইস’-এর প্রচার থেকেও বাদ যেতে হয়েছে পাক অভিনেত্রী মাহিরা খানকে। কিন্তু সেই সিদ্ধান্ত থেকে কি সরে দাঁড়াল বলিউড?

ভারত-পাকিস্তানের মধ্যে কূটনৈতিক সম্পর্ক যাই হোক না কেন, পাকিস্তানি অভিনেতারা, শিল্পীরা বার বার এদেশে এসেছেন, সমাদৃতও হয়েছেন। কিন্তু উরি হামলার পরে দেশে সীমান্তের ওপারের অভিনেতা-শিল্পীদের এদেশে কাজ করা নিয়ে প্রবল আপত্তি তোলে শিবসেনার মতো জাতীয়তাবাদী দলগুলি। ‘অ্যায় দিল হ্যায় মুশকিল’-এর মুক্তির আগে রীতিমতো ভিডিও প্রকাশ করে বিবৃতি দিতে হয় করণ জোহরকে যে তিনি আর পাকিস্তানি শিল্পীদের সঙ্গে কাজ করবেন না।

শাহরুখ খানকেও শিবসেনা-প্রধান রাজ ঠাকুরের সঙ্গে দেখা করে কথা দিতে হয় যে ‘রইস’-এর নায়িকা মাহিরা খান এদেশে কোন রকম ছবির প্রচারে অংশ নেবেন না। বিরোধ-বিক্ষোভ এতটাই বাড়ে যে ইন্ডিয়ান মোশন পিকচার্স অ্যাসোসিয়েশনের পক্ষ থেকে সিদ্ধান্ত নেওয়া হয় যে যতক্ষণ না দু’দেশের মধ্যে পরিস্থিতি স্বাভাবিক হচ্ছে, ততদিন এদেশে কাজ করতে পারবেন না পাকিস্তানের কোনও শিল্পী।

কিন্তু দু’দেশের মধ্যে তিক্ত সম্পর্ক এখনও বিরাজ করলেও ভারতীয় গণমাধ্যমের খবর, আগামী মাসেই এদেশে আবারও আসছেন পাকিস্তানি শিল্পীরা। একটি ইংরেজি দৈনিকের প্রতিবেদন অনুযায়ী, আদনান সিদ্দিকি ও সজল আলি আগামী মাসের গোড়ার দিকেই ভারতে আসছেন শ্রীদেবী-অভিনীত ‘মম’ ছবির শ্যুটিংয়ের জন্য। এই ছবিতে শ্রীদেবীর স্বামীর ভূমিকায় অভিনয় করছেন আদনান ও শ্রীদেবীর মেয়ের ভূমিকায় রয়েছেন সজল। ছবির শ্যুটিং মাস কয়েক আগেই শুরু হয়েছিল কিন্তু উরি-হামলার পরে ইমপার সিদ্ধান্ত অনুযায়ী ছবির কাজ মাঝপথে বন্ধ রেখে পাকিস্তানে ফিরে যেতে হয় ওই অভিনেতাদের।

কিন্তু আগামী মাসের শুরুতে আবারও ভারতে এসে ছবির অসমাপ্ত কাজ শেষ করার কথা আদনান ও সজলের। এর জন্য নাকি তাদের ভিসাও মঞ্জুর হয়েছে বলে জানা গেছে। তবে কি ইমপার সিদ্ধান্তের বদল হল? সাদিক-সজলের পরে বলিউডে আবারও ফিরবেন ফাওয়াদ-মাহিরা?