এসপিবি.এন নিউজ – অনলাইন ডেস্ক: নারী ও পুরুষের মধ্যে পরিপূর্ণ মিলনের যে কত ভাল গুণ রয়েছে, সে কথা অনেকেই জানেন। রক্তচাপ স্বাভাবিক রাখতে, স্ট্রেস কমাতে সাহায্য করে সেক্স। উদ্দাম মিলন নারী ও পুরুষ-দুজনের চেহারাতেই বয়সের ছাপ পড়তে দেয় না। সম্প্রতি সেক্স সম্পর্কে প্রায় একডজন নয়া তথ্য উঠে এসেছে একটি কনডম প্রস্তুতকারী সংস্থার সমীক্ষায়। এই প্রতিবেদনে সেগুলি তুলে দেওয়া হল-

১. ডুরেক্স গ্লোবাল সেক্স সার্ভে জানাচ্ছে, প্রেমিক-প্রেমিকারা বছরে গড়ে ১৩৯ বার মিলিত হন। এই বিষয়ে সবচেয়ে এগিয়ে ফরাসিরা। তাঁরা বছরে গড়ে ১৬৭ বার মিলিত হন।

২. সুমধুর যন্ত্রসঙ্গীত মিলনকে আরও উদ্দীপ্ত ও আবেদনময়ী করে তোলে। বেডরুমে মোৎজার্ট বা বেঠোফেনের সিডি রাখার পরামর্শ দিচ্ছে বিশেষজ্ঞরা।

৩. গোপনাঙ্গকে পরিষ্কার রাখতে গিয়ে বারবার কোনও বাজারচলতি রাসায়নিক ব্যবহার করা উচিত নয়। এতে মহিলাদের গোপনাঙ্গে যে ‘হেলদি ব্যাকটেরিয়া’ থাকে, সেগুলি ধুয়ে বেরিয়ে যায়।

৪. ডুরেক্সের সমীক্ষা জানাচ্ছে, প্রতি ১০ জনের মধ্যে অন্তত ৪ জন তাঁদের প্রিয় বন্ধুর পার্টনারের সঙ্গে মিলিত হতে পছন্দ করেন।

৫. ‘ব্লু বল’ রোগ হলে পুরুষদের বীর্যস্খলনে কষ্ট হয়।

৬. একজন স্বাভাবিক মহিলার গর্ভধারণে প্রায় ৮ মাস সময় লাগে। এই সময়টুকু মিলিত হওয়ার সম্ভাবনা থাকে না বললেই চলে। কিন্তু অধিকাংশ পুরুষই এই সময়টুকুকে উপভোগ করেন।

৭. বিশ্বাস করুন বা নাই করুন, অনেকেই ভাবেন বীর্যে নাকি ‘অ্যান্টি-এজিং ফ্যাক্টর’ থাকে বলে মুখে মাখলে বয়সের ছাপ পড়ে না।

৮. শরীরকে সুস্থ ও স্বাভাবিক রাখতে সপ্তাহে অন্তত ৪ বার মিলনে লিপ্ত হওয়াটা স্বাস্থ্যকর।

৯. এক একবার পরিপূর্ণ মিলনে অতিরিক্ত রক্তচাপ কমে যায়, কমে স্ট্রেস।

১০. কোনও কারণে ডিপ্রেসড থাকলে সেক্সের চেয়ে ভাল দাওয়াই নেই, এমনটাই জানাচ্ছেন বিশেষজ্ঞরা।

১১. এক টেবিল চামচ বীর্যে মাত্র ৩৬ ক্যালরি থাকে।

১২. মিলনের আগে ততক্ষণ পার্টনারের সঙ্গে ফোর-প্লে করুন, যতক্ষণ বা আপনাদের দু’জনেরই গোপনাঙ্গে খানিকটা ময়েশ্চার জমছে। এতে মিলনের সুখানুভূতি বাড়ে।

তথ্যসূত্র: সংবাদপ্রতিদিন