foodsআলু, বেগুন, টোম্যাটো, পেঁয়াজ তো বাঙালি হেঁসেলের রোজকাল সঙ্গী। এগুলো ছাড়া রান্নার কথা ভাবতে পারেন? অধিকাংশ মানুষই যেখানে নিরামিশাষী তারা ভরসা রাখেন এই সব সব্জির ওপরই। তবে জানেন কি এই সব সব্জির বেশির ভাগই ভারতীয় নয়? তা দেশের রান্নাঘরে ঢুকেছে বিশ্বের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে? জেনে নিন কোন সব্জির জন্ম কোথায়।

১. ভূট্টা: মধ্য আমেরিকায় প্রথম শুরু হয়েছিল ভূট্টা চাষ।

২. বিনস: বরবটি বা বিনসের জন্ম দক্ষিণ আমেরিকায়।

৩. সিম: দক্ষিণ আমেরিকাতে জন্ম সিমের।

৪. ক্যাপসিকাম: লঙ্কা বা ক্যাপসিকামের কথা শুনলেই কোন দেশের কথা মনে পড়ে? মেক্সিকো। তাই না? লঙ্কা ও ক্যাপসিকামের জন্ম দক্ষিণ আমেরিকাতেই।

৫. আলু: ভাবতে পারেন আলু ভারতীয় সব্জি নয়? দক্ষিণ আমেরিকায় শুরু হয়েছিল আলু চাষ।

৬. কুমড়ো: দক্ষিণ আমেরিকায় প্রথম শুরু হয়েছিল কুমড়ো চাষ।

৭. স্কোয়াশ: এই সব্জির ভারতে প্রবেশ দক্ষিণ আমেরিকা থেকে। এ দেশের পাহাড়ি অঞ্চলে বহুল পরিমাণে স্কোয়াশ চাষ হয়।

৮. রাঙা আলু: এই সব্জিও জন্ম দক্ষিণ আমেরিকায়।

৯. টোম্যাটো: বলাই বাহুল্য টোম্যাটোরও জন্ম দক্ষিণ আমেরিকায়।

১০. গাজর: এই সব্জির জন্ম পশ্চিম ইউরোপে।

১১. বাঁধাকপি: পশ্চিম ইউরোপে প্রথম শুরু হয়েছিল বাঁধাকপি চাষ।

১২. সালগম: পশ্চিম ইউরোপ থেকে এই সব্জিকে চিনতে শিখেছে দুনিয়া।

১৩. ঢেঁড়স: প্রথম ঢেঁড়সের চাষ শুরু হয়েছিল আফ্রিকায়।

১৪. কচু: বাঙালিদের দারুণ প্রিয় এই সব্জির জন্ম কিন্তু আফ্রিকায়।

১৫. বিট: দারুণ উপকারী এই সব্জির চাষ মধ্য প্রাচ্যে শুরু হলেও এখন পাশ্চাত্যেও জনপ্রিয় বিট।

১৬. সেলেরি: মধ্য প্রাচ্যেই প্রথম শুরু হয় সেলেরি গাছের চাষ।

১৭. লেটুস: মধ্য প্রাচ্যে জন্ম হলেও পাশ্চাত্যের সালাড, স্যান্ডউইচের এখন অন্যতম উপাদান লেটুস।

১৮. পেঁয়াজ: মধ্য প্রাচ্যের এই সব্জি এখন সারা পৃথিবীতে জনপ্রিয়।

১৯. কড়াইশুটি: প্রথম চাষ শুরু হয় মধ্য প্রাচ্যে। সেখান থেকে ছড়িয়ে পড়া সারা বিশ্বে।

২০. মূলো: মধ্য প্রাচ্যে প্রথম মূলো চাষ শুরু হয়।

২১. পালং শাক: এই শাকের জন্মস্থান মধ্য প্রাচ্য।

২২. শশা: এই সব্জি কিন্তু খাঁটি ভারতীয়।

২৩. বেগুন: এই সব্জির জন্ম কিন্তু খোদ ভারতে।