এসপিবি.এন নিউজ – অনলাইন ডেস্ক: সিলেটের আতিয়া মহলে জঙ্গি আস্তানায় প্যারা কমান্ডোর জঙ্গি বিরোধী অভিযানের সময় দক্ষিণ সুরমার গোটাটিকর মাদ্রাসার সামনে পুলিশ চেকপোস্টের কাছে বোমা বিস্ফোরণে গুরুতর আহত র‌্যাবের গোয়েন্দা শাখার প্রধান লে. কর্নেল আবুল কালাম আজাদ চিকিৎসাধীন অবস্থায় ঢাকার সম্মিলিত সামরিক হাসপাতাল (সিএমএইচ)-এ ইন্তেকাল করেছেন ইন্না লিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাইহি রাজিউন।

বৃহস্পতিবার দিনগত রাত ১২টা ৫ মিনিটে ঢাকার সম্মিলিত সামরিক হাসপাতাল (সিএমএইচে) চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিনি মারা যান। লাইফ সাপোর্টে থাকা অবস্থায় তাকে সিঙ্গাপুরের মাউন্ট এলিজাবেথ হাসপাতাল থেকে দেশে আনা হয়। সামরিক হাসপাতালে তার চিকিৎসা চলছিল। র‌্যাবের আইন ও গণমাধ্যম শাখার পরিচালক কমান্ডার মুফতি মাহমুদ খান রাত একটার দিকে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

এরআগে গত শনিবার সন্ধ্যা ৭টার দিকে আতিয়া মহলে প্যারা কমান্ডোর জঙ্গিবিরোধী অভিযানের সময় দক্ষিণ সুরমার গোটাটিকর মাদ্রাসার সামনে পুলিশ চেকপোস্টের কাছে বোমা বিস্ফোরণে আহত হন র‍্যাবের গোয়েন্দা শাখার প্রধান লে. কর্নেল আবুল কালাম আজাদ। ঘটনার পর তাকে সিলেট ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল ভর্তি করা হয়। সেখানে নিবিড় পরিচর্যা কেন্দ্রে (আইসিইউ) চিকিৎসাধীন ছিলেন তিনি। শারীরিক অবস্থা গুরুতর হওয়ায় রাতে বিমান বাহিনীর হেলিকপ্টারে তাকে ঢাকায় আনা হয়। সেখানে তার অবস্থা আরো খারাপ হওয়ায় রোববার সন্ধ্যায় তাকে সিঙ্গাপুরে নিয়ে যাওয়া হয়। সিঙ্গাপুরে তার অবস্থার কোনো পরিবর্তন না হওয়ায় ফের দেশে ফিরিয়ে আনা হয়।

গত বৃহস্পতিবার গভীর রাতে সিলেটের দক্ষিণ সুরমার শিববাড়ি এলাকায় জঙ্গি আস্তানার সন্ধান পাওয়ার পর তা ঘিরে ফেলে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী। পরদিন শুক্রবার ঢাকা থেকে পুলিশের কাউন্টার টেররিজম, সোয়াট ও র‍্যাবের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা সেখানে যান।

প্রায় ৩০ ঘণ্টা ওই বাড়ি ঘিরে রাখার পর শনিবার সকালে অভিযান শুরু করে সেনাবাহিনীর প্যারা কমান্ডোরা। এরপর বিভিন্ন কৌশলে ওই বাড়িতে আটকে থাকা বিভিন্ন ফ্ল্যাটের ৭৮ জন বাসিন্দাকে উদ্ধার করে কমান্ডো দল। ওই দিন সন্ধ্যায় সেনাবাহিনীর পক্ষ থেকে এ বিষয়ে একটি সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করা হয়। সংবাদ সম্মেলনের শেষে এর খুব কাছাকাছি পাঠানপাড়া এলাকায় দুই দফা বিস্ফোরণ ঘটে। এতেই গুরুতর আহত হন সেনাবাহিনী থেকে র‌্যাবে আসা কর্মকর্তা লে. কর্নেল আবুল কালাম আজাদ।