এসপিবি.এন নিউজ – অনলাইন ডেস্ক: রাজধানীতে পৃথক তিনটি সড়ক দুর্ঘটনায় চারজনের মৃত্যু হয়েছে। সোমবার রাতে এসব দুর্ঘটনা ঘটে। খিলক্ষেতে হোটেল লা মেরিডিয়ানের সামনে বাসের ধাক্কায় আবু বকর সিদ্দিক নিলয় এবং সাতরাস্তায় রবিউল ইসলাম নামে এক ট্রাকচালক নিহত হয়েছেন।

এদিকে খিলগাঁওয়ে যাত্রীবাহী বাস খাদে পড়ে অন্তত দু’জন নিহত হয়েছেন। তাদের বয়স ৩৫ থেকে ৪০ এর মধ্যে। তাদের পরিচয় পাওয়া যায়নি। এ ঘটনায় বেশ কয়েকজন আহত হয়েছেন বলে পুলিশ জানিয়েছে। তবে তাৎক্ষণিকভাবে বিস্তারিত তথ্য দিতে পারেনি পুলিশ।

ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের পুলিশ ক্যাম্পের ইনচার্জ এসআই বাচ্চু মিয়া জানান, সোমবার সন্ধ্যা সাড়ে ৭টার দিকে খিলক্ষেতের হোটেল লা মেরিডিয়ানের সামনে রাস্তা পার হওয়ার সময় নিলয় গুরুতর আহত হন। প্রথমে তাকে কুর্মিটোলা জেনারেল হাসপাতালে নেয়া হয়। সেখানে অবস্থার অবনতি হলে তাকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেয়া হলে সাড়ে ৮টার দিকে চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন। তিনি পুরান ঢাকার গেণ্ডারিয়ার এসকে দাস রোড এলাকার শাহাদত আলীর ছেলে।

নিলয়ের চাচাতো ভাই এহতেশাম বলেন, শান্তিনগরে একটি বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের বিবিএ’র ছাত্র নিলয়। এর পাশাপাশি তিনি উত্তরার একটি রেস্টুরেন্টে চাকরি করতেন। তেজগাঁও শিল্পাঞ্চল থানার এসআই জামিউর ইসলাম বলেন, সাত রাস্তায় বলাকা বাসের চাপায় নিহত রবিউল ইসলাম ট্রাকচালক। এ ঘটনায় আহত জাফর নামে এক রিকশাচালক এবং পথচারী ইসমাইলকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

এদিকে খিলগাঁওয়ের বনশ্রীর নাগদারপাড়ায় স্বাধীন পরিবহনের একটি বাস রাস্তার পাশে খাদে পড়ে দু’জন নিহত হওয়ার খবর পাওয়া গেছে। রাত সাড়ে ১০টার দিকে এ ঘটনা ঘটে বলে ফায়ার সার্ভিস সূত্র জানিয়েছে। নিহত দু’জনের লাশ পুলিশ ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠিয়েছে। আহত কয়েকজনকে স্থানীয় হাসপাতালে চিকিৎসা দেয়া হচ্ছে।

ফায়ার সার্ভিসের ডিউটি অফিসার বাবুল মিয়া বলেন, স্বাধীন পরিবহনের ওই বাসটি নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে যে খাদে পড়েছে সেখানে হাঁটু পানি। ঘটনার পর ফায়ার সার্ভিসের চারটি ইউনিট গিয়ে বাসের ভেতরে কেউ রয়েছে কিনা তা পরীক্ষা করছে। তবে রাত ১২টা পর্যন্ত ওই বাসে কাউকে পাওয়া যায়নি।

খিলগাঁও থানার ওসি কাজী মাইনুল ইসলাম বলেন, রাত ১২টা পর্যন্ত দু’জনের মৃত্যুর বিষয় নিশ্চিত হওয়া গেছে। এ ঘটনায় অনেকেই আহত হয়েছেন বলে ধারণা করা হচ্ছে। তবে এর সংখ্যা কত তা নিশ্চিত করে তিনি বলতে পারেননি।