রাজধানী রিয়াদে বুধবার বাণিজ্যিক সম্মেলনের ভাষণে তিনি বলেন, “এ অপরাধ সব সৌদি নাগরিকের কাছেই যন্ত্রণাদায়ক”।

কিন্তু এ ঘটনাকে কেন্দ্র করে তুরস্কের সঙ্গে কখনো কোনো বিরোধ হবে না বলে মন্তব্য করেন তিনি।

গত ২ অক্টোবর তুরস্কে ইস্তাম্বুলের সৌদি কনস্যুলেটে খাশুগজি নিহত হওয়ার পর এটিই জনসম্মুখে সৌদি ক্রাউন প্রিন্স বিন সালমানের প্রথম বক্তব্য।

খাশুগজি খুনের ঘটনায় যুবরাজের কোনো ভূমিকা থাকার অভিযোগ সৌদি আরব এর আগে অস্বীকার করেছে।

খাশুগজি নিজের বিয়ের জন্য প্রয়োজনীয় কাগজপত্র সংগ্রহ করতে কনস্যুলেট ভবনে প্রবেশের পর আর বেরিয়ে আসেননি। সৌদি আরব তাকে হত্যার জন্য দুর্বৃত্ত ঘাতকদের দায়ী করেছে।

প্রিন্স মোহাম্মদ বিন সালমান বলেন, “এ হত্যাকাণ্ড একটি জঘন্য অপরাধ। এর কোনো যৌক্তিকতা নেই। এ অপরাধের পেছনে যারা আছে তাদের বিচার করা হবে… শেষপর্যন্ত ন্যাবিচারেরই জয় হবে।”

তুরস্কের সঙ্গে বেশ ভালোভাবে সহযোগিতার মধ্য দিয়েই কাজ চলছে জানিয়ে যুবরাজ বলেন, “বেদনাদায়ক এ ঘটনায় সৃষ্ট পরিস্থিতি নিয়ে অনেক মানুষই সৌদি আরব আর তুরস্কের মধ্যে বিরোধ বাধানোর চেষ্টা করছে। আমি তাদেরকে বলব যে, একাজে আপনারা কখনই সফল হবেন না। কোনো বিরোধ কখনো হবে না।”

“দুই দেশের সরকার (সৌদি আরব এবং তুরস্ক) অপরাধীদের সাজা দিতে সহযোগিতার ভিত্তিতে কাজ করছে এবং শেষ পর্যন্ত যে ন্যায়বিচারই জয়ী হবে তা আমরা বিশ্ববাসীর সামনে প্রমাণ করে দেব।”