colored condoms - farbige kondomeনিরাপদ যৌনজীবনের অন্যতম চাহিদা গর্ভনিরোধক বা কন্ডম। বাজারে বিভিন্ন রকমের গর্ভনিরোধকের চল রয়েছে। রয়েছে নানা ফ্লেভারে কন্ডম। কিন্তু, অনেকেই হয়তো জানে না, এসব কন্ডমের সুফল।

ধারণা করা হয়, কন্ডম উৎপাদন পণ্যকে বাজারজাত করতেই এই সমস্ত চটক দিয়ে থাকে বাস্তবে কিন্তু তা নয়।
বিশেষজ্ঞদের মতে, বাজারে যে সমস্ত কন্ডম পাওয়া যায় তার প্রত্যেক পৃথক সুফল রয়েছে। সবটাই কিন্তু চটক নয় এক্কেবারে। কন্ডমের রকমফেরে পৃথক সুখানুভূতি রয়েছে। তেমন ১০ রকমের কন্ডম সম্পর্কে নিচে দেয়া হলো।

১. রিবস : এই জাতীয় কন্ডমের আউটার লেয়ারে রিবস থাকে। মহিলাদের স্টিমুলেশন বাড়ায় এই রিবস। ফলে, মহিলাদের orgasm তাড়াতাড়ি হয়। তাই, যৌনমিলনের চরম শিখরে পৌঁছতে এর জুড়ি মেলা ভার।

২. লং লাস্টিং : নামেই স্পষ্ট যে এই ধরনের কন্ডমের মহিমা।  অনেকেই শীঘ্রপতনের সমস্যায় ভোগেন। তাদের জন্য এই কন্ডম আদর্শ। কন্ডমের মাথায় এক ধরনের সলিউশন লাগানো থাকে। যা পুরুষাঙ্গকে কিছুক্ষণের জন্য অবশ করে দেয়। স্বাভাবিকভাবেই  এরফলে অর্গাজম হতে সময় লাগে।

৩. আন ফ্লেভারড : এই ধরনের কন্ডম সবচেয়ে জনপ্রিয়। অধিকাংশরাই নিরাপদ যৌনমিলনের জন্য এই বিশেষ ধরনের কন্ডম ব্যবহার করে থাকেন। কিন্তু এই ধরনের কন্ডম কীভাবে সংরক্ষণের পদ্ধতিটা জেনে নেওয়াটা খুবই সরকার। এটি ব্যবহার করার আগে অবশ্যই মেয়াদ যাচাই করে নেবেন। তা না হলে বিপদে পড়তে হতে পারে।

৪. অ্যালো ভেরা : আমরা ভাল  করেই জানি যে অ্যালো ভেরার অনেক রকমের গুণ আছে।  ভাবছেন কন্ডমের সঙ্গে অ্যালো ভেরার সম্পর্কটা কোথায়? যদি কখনও এক টুকরো অ্যালো ভেরা কাটেন, তবে দেখতে পাবেন জেলির মতো পিচ্ছিল পদার্থ বেরুচ্ছে। তাই ন্যাচারল লুব্রিকেন্ট পেতে চাইলে এই কন্ডম ব্যবহার করুন ।

৫. ফ্লেভারড : বিভিন্ন ধরনের ফ্লেভারড কন্ডম পাওয়া যায়। ভ্যানিলা, স্ট্রবেরি, চকোলেট, বাবল গাম, কফি যা চাইবেন তাই পাবেন। এই ধরনের কন্ডম ওরাল সেক্সের সময় STD বা sexually transmitted disease-এর আশঙ্কা অনেকটাই কমিয়ে দেয়।

৬. ডটেড : এই জাতীয় কন্ডমের গায়ে ছোট ছোট ডট থাকে। অন্য ধরনের অভিজ্ঞতা পেতে চাইলে, এই ধরনের কন্ডমই আদর্শ। বেশিরভাগ কন্ডমেই লুব্রিকেন্ট থাকে। তার সঙ্গে ডট থাকায় মিলন হয়ে ওঠে একেবারে মধুর।

৭. আলট্রা থিন : অধিকাংশ পুরুষ কন্ডম ব্যবহার করতে পছন্দ করেন। তারা মনে করেন কন্ডমের কারণে স্বাভাবিক সুখানুভূতি পাওয়া যায় না । তাদের জন্য রয়েছে আলট্রা থিন কন্ডম। এই কন্ডম খুব পাতলা হয়। একেবারে ‘সুপার থিন’।  যাতে মনে হবে ‘ন্যাচরাল ফিল’ পাচ্ছেন।

৮. বিগ হেড : অধিকাংশ কন্ডোম মোটামুটি সবাইকে ফিট করে। কিছু পুরুষ আছেন যাদের বড় সাইজ চাই। তাদের কথা মাথায় রেখে এই ধরনের কন্ডম বাজারে পাওয়া যায়। ভুল সাইজের কন্ডম ব্যবহার করা বন্ধ করা উচিত। কারণ, প্রয়োজনের তুলনায় ছোট সাইজের কন্ডম সহজেই ছিঁড়ে যেতে পারে। অজান্তেই ডেকে আনতে পারে বিপদ।

৯. এক্সট্রা লুব্রিকেটেড : বহু মহিলা ড্রাই ভার্জিনার সমস্যায় ভোগেন। এই সমস্ত মহিলাদের এক্সট্রা লুব্রিকেটেড কন্ডম একেবারে আদর্শ। এই জাতীয় কন্ডমে নর্মাল কন্ডমের তুলনায় দু’গুণ বেশি লুব্রিকেন্ট দেওয়া থাকে। ফলে ঘর্ষণজনিত ব্যাথা কম হয়। পেইন ফ্রি সেক্স উপভোগ করা যায়।

১০. ওয়ার্ম : ওয়ার্ম এবং স্টেমি সেক্সের জন্য এই বিশেষ ধরনের কন্ডম। এই কন্ডমে ওয়ার্মিং এজেন্ট দিয়ে লুব্রিকেট করা হয়। ফলে, ব্যবহাকারীরা সহজেই আভাস পাবেন।
আপনি এবার আপনার পছন্দ এবং প্রয়োজনমতো কন্ডমকে বেছে নিতে পারেন। অনুভব করতে পারেন যৌনমিলনের প্রকৃত সুখানুভূতি।