শিক্ষা অর্জনের বা জীবিকার প্রয়োজনে নারীরা আসেন তিলোত্তমা এই ঢাকা মহানগরীতে। এই নগরে যাদের আত্বীয়-স্বজন রয়েছে। তাদের থাকার কোন সমস্যা নেই। তবে যাদের আত্বীয় স্বজন নেই তাদের জন্য বাসস্থান বেশ কার্যকর। এই কষ্ট দুর করতে বেসরকারী / ব্যাক্তি মালিকানায় ঢাকা শহরের ফার্মগেট, মোহাম্মদপুর, মিরপুর, মগবাজার, উত্তরা, সিদ্ধশ্বরী এলাকায় কর্মজীবি মহিলা ও ছাত্রী হোস্টেল গড়ে উঠেছে। কঠোর নিরাপত্তা ব্যবস্থা, লেখাপড়ার সুষ্ঠ পরিবেশ, উন্নত খাবার এবং মানসম্মত থাকার ব্যবস্থা রয়েছে এই সব হোষ্টেলে।

কক্ষ ব্যবস্থাপনা, থাকা ও খাবার ফি
সাধারনত প্রত্যেক হোষ্টেলে প্রতিটি কক্ষে ১ জন, ২জন, ৩ জন, ৪ জন ও ৫ জন করে থাকার ব্যবস্থা রয়েছে। সিঙ্গেল রুমের থাকা খাওয়া সহ খরচ হয় উত্তরাতে ৫,৫০০/= টাকা, মগবাজার ও সিদ্ধেশ্বরীতে ৬,০০০/= টাকা, ফার্মগেটে ৪,৫০০/= টাকা এবং মোহাম্মদপুরে ৩,০০০/= টাকা। দুই জনের রুমে প্রতি সিট ভাড়া ও খাওয়া সহ খরচ উত্তরাতে ৫০০০/= টাকা, মোহাম্মদপুরে ৩,৬০০/=টাকা, মগবাজার ও সিদ্ধশ্বরীতে ৪,৫০০/=টাকা এবং ফার্মগেটে ৪,০০০/= টাকা। ৩জন/ ৪জন/ ৫জনের রুমে প্রতি সিট ভাড়া ও খাওয়া সহ উত্তরাতে ৪,৫০০/= টাকা, মোহাম্মদপুরে ৩,০০০/= টাকা থেকে ৩,২০০/= টাকা, মগবাজার ও সিদ্ধশ্বরীতে ৪,০০০/= টাকা এবং ফার্মগেটে ২,৫০০/=টাকা থেকে ২৮০০/= টাকা।
সিট প্রাপ্তির নিয়মাবলী ও অন্যান্য ফি
সিট নিতে হলে সদস্য ফরম পূরন করতে হয়। বাবা মা ছাড়াও ঢাকাতে লোকাল অভিভাবক এর নাম, ঠিকানা এবং ছবি জমা দিতে হয়। ভর্তি ফি বাবদ উত্তরাতে ২,০০০ টাকা, মোহাম্মদপুরে ১,০০০ থেকে ১,২০০ টাকা, মগবাজার বা সিদ্ধশ্বরীতে ২,৪০০/= টাকা এবং ফার্মগেটে ১৫০০ টাকা থেকে ১,৮০০ টাকা প্রদান করতে হয়। কম্পিউটার ব্যবহার করলে অতিরিক্ত ১৫০ টাকা থেকে ২০০ টাকা প্রত্যেক মাসে প্রদান করতে হয়। প্রত্যেক মাসের ৫ তারিখের মধ্যে মাসের থাকা খাওয়ার ফি পরিশোধ করতে হয়।
প্রবেশ ও বাহিরের সময়সূচী-
নিরাপত্তার কথা চিন্তা করে হোষ্টেল কর্তৃপক্ষ ছাত্রীদের ক্ষেত্রে ফেরার সময় রাত ৮.০০ টা এবং কর্মজীবি মহিলাদের ক্ষেত্রে রাত ১০.০০ টা।
সাথে যা আনতে হবে
হোস্টেল গুলো থেকে থাকার খাট, টেবিল সরবরাহ করা হয়। বোডারদের তোষক, বালিশ, চাদর, থালাবাসন ও ফ্যান নিয়ে আসতে হয়।
টাকা ও গহনা রাখার ব্যবস্থা
বোডারদের নিজরুম থেকে টাকা বা গহনা হারিয়ে গেলে কর্তৃপক্ষ কোন প্রকার দায়দায়িত্ব নেয় না। তবে বোডাররা ইচ্ছে করলে রিসিভ কপির মাধ্যমে টাকা বা গহনা হোষ্টেল কর্তৃপক্ষের নিকট জমা রাখতে পারে। সে ক্ষেত্রে সকল দায়-দায়িত্ব কর্তৃপক্ষের।
বিবিধ
হোষ্টেলে সিট ছাড়তে হলে অন্তত ১ মাস আগে কর্তৃপক্ষকে জানাতে হবে। ইচ্ছে করলে বোডাররা নিজেও রান্না করতে পারে। তবে এতে মাসিক ফি’র কোন প্রকার কম করা হয় না।

””’মহিলা হোস্টেল সম্পর্কিত Post গুলো   ”http://www.online-dhaka.com/”   সাইট থেকে মুলত ইন্টারনেট ব্যবহারকারীদের সহায়তার জন্য সংগ্রিহিত এবং প্রকাশিত। আরও আপডেটের জন্য  http://www.online-dhaka.com/  এই সাইটটিতে ভিজিট করুন…”””